দুদিন আগে রাজধানীর বাড্ডা লিংক রোডে ট্রাফিক পু’/লি’/শের ওপর রা’গ করে নিজের মোটরসাইকেল পু’/ড়ি’য়ে দেন রাইড শেয়ার চালক শওকত আলী নামের এক যুবক। এই ঘটনার একটি ভিডিও পরবর্তীতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর সেটি খুব কম সময়ের মধ্যে ভা’ইরাল হয়ে যায়।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

গত সোমবার অর্থাৎ ২৭ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা ১৫ মিনিটের দিকে বাড্ডা লিংক রোড এলাকায় অবস্থিত জনতা ইন্স্যুরেন্সের সম্মুখে এই ধরনের ঘটনা ঘটে। তিনি নিজের দো’ষ স্বীকার করেন এবং বলেন এখানে পু’/লি’/শের কোনো দো’ষ নেই। এরপর পূ’/ড়ে যাওয়া মোটরসাইকেল এবং শওকতকে পু’/লি’/শ বাড্ডা থা’/নায় নিয়ে যায়। পরবর্তীতে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে তাকে ছেড়ে দেয়।

সেময় বাড্ডা জোনের সহকারী কমিশনার (ট্রাফিক) সুবীন রঞ্জন দাস জানান, শওকতকে খুবই হ’/তা’শাগ্র/স্ত মনে হয়েছে। তিনি ব্যবসা করতেন, কিন্তু লোকসান হওয়াতে তিনি এই পেশায় আসেন। হয়তো এসব বিষয় নিয়ে তিনি হ’তাশ ছিলেন।

ওকত আলী আজ মঙ্গলবার বলেন, পু’/লি’/শের ওপর আমার রা’গ না, রা’গ রাইড শেয়ারিং অ্যাপের ওপর। অ্যাপ ব্যবহার করে যা আয় করি বেশিরভাগই তারা নিয়ে যায়। তিনি বলেন, রাইড শেয়ারিং করি পেটের দায়ে। কিন্তু যা আয় করি তা যদি মা’/ম’/লার জ’রিমা’না হিসেবে দেই, তাহলে কাগজপত্র ঠিক রেখে কি লাভ। তাই রা’গ থেকে মোটরসাইকেল পু’/ড়িয়ে দিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, "আমি প্রচলিত যে নিয়ম এবং সিস্টেম সেটা পরিবর্তনের জন্য আ’/গু’ন লাগিয়েছি, মোটরসাইকেল না পাওয়ার জন্য নয়। পু’/লি’/শ প্রশাসন হতে আরম্ভ করে রাইড শেয়ার অ্যাপসভিত্তিক যে নৈ’রাজ্য চলামন আছে, আমি সেই সিস্টেমগুলোর পরিবর্তন চাইছি। শওকত আলী বলেন, অনেকে আমাকে বাইক গিফট হিসেবে দিতে চাইছে, আমি চাইলে ১০ টি নিতে পারবো। কিন্তু কোনো মানুষ সিস্টেম বদলের কথা বলছে না। কেউ যাতে আর কোনোভাবে হ’/য়রা’নির শি’/কা’র না হয়, সেই সিস্টেমের বদল চাই।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display