সন্তানের ভালো ফলাফল হলে পিতামাতা মিষ্টি মুখ করায়। এমনটাই শুনে এসেছেন দিনমজুর বাবা হারুন মাদবর। তার মেয়ে কাকলী আক্তার এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছে। আশে পাশে গ্রামগুলোর ভেতর তার মেয়ে কাকলীই সবচেয়ে ভালো রেজাল্ট করেছে। কিন্তু অভাব এমনই যন্ত্রণায় ফেলেছে হারুনকে যে, এই খুশির দিনে মিষ্টি কেনার পয়সা তার পকেটে নেই।

অতঃপর মসজিদের মিলাদ থেকে পাওয়া একটা জিলেপি দিয়েই মিষ্টি মুখ করানো হলো মেয়েকে!

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার পাচ্চর এলাকায় একটি ছোট ভাঙ্গা টিনের ঘরে বসবাস করেন কাকলী ও তার পরিবার। আজীবন অভাবের সাথে লড়াই করে বেড়ে ওঠা এই অদম্য মেধাবী সংগ্রামী মুখ গুলোও কখনো মলিন হয়ে ওঠে দুঃখের যন্ত্রনায়। সর্বোচ্চ খুশির দিনটিতেও কাকলীর চোখে পানি। নাহ, আনন্দ অশ্রু না। এই অশ্রু ফোটা এসেছে অভাবের দুঃখে। অনিশ্চিত ভবিষ্যতের কষ্টে। সংগ্রাম করে মাধ্যমিক তো পার হলো ভালো ফলাফল করেই কিন্তু উচ্চ শিক্ষার অনিশ্চিত ভবিষ্যতের কষ্টে কাঁদছে কাকলী।

ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পায় কাকলী। আশেপাশে গ্রামগুলোর মধ্যে কাকলীই একমাত্র জিপিএ ৫ পেয়েছে। অথচ টাকার অভাবে বই কিনতে পারেনি এই হতভাগা শিক্ষার্থী।

কাকলীর দিনমজুর বাবার পক্ষে সন্তানের লেখা পড়ার ব্যয় বহন করা সম্ভব না। কোনোভাবে দিন পার করে দিচ্ছে তার জীবন সংগ্রাম করে। কিন্তু পড়াশুনায় মনযোগী কাকলী অন্যদের সহায়তায় কোনো রকম লেখা পড়া করে যাচ্ছিলো। এসএসসি পরীক্ষাতেও সে জিপিএ ৫ পায়। পাচ্চর বালিকা বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষকের সহায়তায় ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী কলেজে ভর্তি হয়। কলেজ কর্তৃপক্ষ তার বেতনসহ যাবতীয় খরচ মওকুফ করে দেয়। কিন্ত এরপরও পড়াশুনা চালিয়ে যেতে খুব কষ্ট করতে হয়েছে তাকে।

পরিবারে ৫ ভাইবোনসহ মোট ৭ সদস্য। খাবার জোগার করতেই হিমশিম খায় বাবা হারুন মাতবর ও মা তসলিমা মাতবরকে। তাই মেয়েকে পড়ার কোনো খরচ দিতে পারেন না তারা। টিউশনি করিয়ে বইখাতা কিনতে হতো কাকলীকে। কিন্তু তাতেও যে প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। টাকার অভাবে এইচএসসিতে সব বইও কিনতে পারেনি এই শিক্ষার্থী। ৪টি বই কিনেছে নিজে। বাকি দুটো বই মানুষের কাছ থেকে ধার করে এনে পড়েছে।

পরিবারের অভাবের কথা ও সন্তানের সংগ্রামের কথা তুলে ধরে কাকলীর মা তাসলিমা বেগম বলেন, ’পরিবারের খাবার জুটানোই কষ্ট। পড়ার খরচ দেয়ার সামর্থ নাই। কাকলী নিজের চেষ্টাই এই পর্যন্ত আইছে।’

ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী কলেজের অধ্যক্ষ মো. হাফিজুর রহমান বলেন, ’কাকলী আক্তার অদম্য মেধাবী। ওর পাশে আমরা শুরু থেকেই ছিলাম। সবাই ওর জন্য এগিয়ে আসলে ও অনেক এগিয়ে যাবে।’

ছবি: সংগৃহীত

আরো পড়ুন

বিচারকের করা একটি প্রশ্নে 'চুপ' হয়ে যান টিকটকার অপু

04 August, 2020 | Hits:210

বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ভিডিও অ্যাপগুলোর মধ্যে টিকটক একটি, আর বর্তমান সময়ে এরই একজন তারকা ’অপু ভাই’, যার বিরুদ্ধে ব...

মেজর সিনহাকে আরও দুটি গু'লি করা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে প্রশ্নের

05 August, 2020 | Hits:180

বাংলাদেশ সে’নাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান গত শুক্রবার রাতে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার শামলাপুরে কক...

করোনার নতুন চিকিৎসা পদ্ধতি হবে অনেকটাই কার্যকর: ড.অ্যান্থনি ফাউসি

04 August, 2020 | Hits:122

করোনাভাইরাস সারা বিশ্বে সৃষ্টি করে চলেছে বিপর্যয় এবং এই ভাইরাসের একটি কার্যকর প্রতিষেধক আবিষ্কারের জন্য গবেষক এবং বিজ্ঞা...

মেজর সিনহার মা'কে ফোন করলেন প্রধানমন্ত্রী

04 August, 2020 | Hits:121

গত শুক্রবার কক্সবাজারের টেকনাফে পুলি’শের কাজে বাধা দেওয়ার জন্য পুলিশ মেজর সিনহাকে গু’লি করে হ’’ত্যা করে। অপ্রত্যাশিত ঘট...

করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে হতাশার কথা শোনালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রধান

04 August, 2020 | Hits:110

করোনাভাইরাসের কারনে সমগ্র বিশ্ব এখন বিপর্যস্ত, এখনও মেলেনি এই ভাইরাস মোকাবিলার জন্য একটি কার্যকরী টিকা বা অন্য কোনো ঔষধ।...

আমার ছেলেটি খুব প্রতিভাবান, যদি যত্ন নিতাম তাহলে ভালো হতো: অপুর বাবা

04 August, 2020 | Hits:107

আমার ছেলে আসলেই প্রতিভাবান এবং মেধাবীও। আমরা যদি ওর ঠিকঠাক খোজখবর এবং যত্ন নিতাম তাহলে ও ভালো করত- এমনটাই জানালেন ইয়াসিন...

উল্টো পথে নেতার গাড়ি, আইন মানতে বা'ধ্য করলেন ওসি

05 August, 2020 | Hits:103

আইন অন্ধ আর এই কারনে আইন সবার ক্ষেত্রে সমান। আইনগত বিষয়ে যে সকল নিয়ম আরোপিত হয় তা সবাইকে মেনে চলতে হয়। তবে এই আইনের তোয়া...

করোনায় বাংলাদেশে এক ধরনের নতুন রোগ, চার সপ্তাহেই অকেজো হৃদযন্ত্র-কিডনি

04 August, 2020 | Hits:82

করোনা ভাইরাসের কারনে প্রায় সারা বিশ্বের মানুষ হারিয়েছে স্বাভাবিক জীবনযাপন, আর যারা সংক্রমিত হচ্ছেন তাদের শরীরও থাকছে না ...

প্রতি ডোজ করোনা ভ্যাকসিনের দাম কত পড়বে জানালো মডার্না

05 August, 2020 | Hits:68

সমগ্র বিশ্বের মানুষ এই মুহুর্তে চেয়ে আছে করোনার একটি কার্যকর প্রতিষেধকের দিকে যেটা কিছুটা হলেও মুক্তি দিতে পারবে এই মারন...