একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকায় মনোনীত হয়েছেন দিনাজপুর জেলা যুব মহিলা লীগের অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাস্‌সুম (জুঁই)। তার বাবা মোহাম্মদ আজিজুর রহমান। তিনি বৃহত্তর দিনাজপুর-২ আসন (বালিয়াডাঙ্গী-ঠাকুরগাঁও) আসনে স্বাধীনতার আগে আওয়ামী লীগের এম.এন.এ ছিলেন এবং বৃহত্তর দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।
শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার পর মনোনীত হওয়ার সংবাদ পাওয়ার পর মোবাইল ফোনে জাকিয়া তাবাস্‌সুম জুঁই নিজেই কথা বলেন। আলাপকালে তিনি তার রাজনৈতিক ও পারিবারিক জীবনের কথা নানা কথা তুলে ধরেন।
জাকিয়া তাবাস্‌সুম বলেন, ’আমার বাবা মোহাম্মদ আজিজুর রহমান (সাবেক এম.এন.এ বৃহত্তর দিনাজপুর-২), মা প্রমিদা বেগম। বাবা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে কলকাতা কলেজে পড়াশোনা করেছেন। ১৯৬৬ থেকে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত তিনি বৃহত্তর দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠকও ছিলেন তিনি। আমরা চার ভাই ও চার বোন। আমিই সবার ছোট।’
’বাবা-মা দুজনেই মারা গেছেন। আমার স্বামী মোহাম্মদ আশরাফ আলী ছটু দিনাজপুরের বাহাদুর বাজারে ব্যবসা করেন। আমি আমার স্বামীকে বলেছিলাম, প্রধানমন্ত্রী যদি আমার ফাইলটা পড়ে থাকেন, তাহলে কিন্তু আমি হতে (সংসদ সদস্য) পারি। প্রধানমন্ত্রী আমাকে খুব আদর করেন’, বলেন জুঁই।
সারাবাংলাকে তিনি আরও বলেন, ’আমার বাবা রাজনীতি করে আমাদের পৈতিৃক যে সম্পত্তি ছিল তার সমস্ত কিছু নিঃশেষ করেছেন। আমার বাবা ভাড়া বাড়িতেই মারা যান ১৯৯১ সালে। ইনফ্যাক্ট আমার বাবার চিকিৎসা আমরা শেষ পর্যন্ত করতে পারিনি। হার্টের ভাল্ব নষ্ট হয়েছিল। তখন আমাদের আর্থিক অনটন ছিল। কিন্তু আমার ভাইয়েরা মেধাবী ছাত্র বলে ওনারা চাকরি পেয়েছেন। ওনাদেরও রাজপথে আসার মতো পরিস্থিতি হয়ে ওঠেনি, সংসারের দায়িত্ব কাঁধে নিতে হয়েছে।’
আমার মা দুঃখ করে বলতো, আমার একটা ছেলে-মেয়েও রাজনীতি করলো না। আমি বলতাম, আম্মা আমি রাজনীতি করবো। আমি কিন্তু ছোটবেলায় খুব দুষ্ট ছিলাম, পড়ায় খুব ফাঁকিবাজ ছিলাম। সাংস্কৃতিক জগৎ আমাকে খুব টানত। আমি ১৯৮০ সালে জাতীয় কবিতা সম্মেলনে চাঁদের হাট ক্লাব আয়োজিত সেখানে কবিতা আবৃত্তিতে পুরো দেশের মধ্যে প্রথম স্থান লাভ করি। তারপর ১৯৯৪ সালে এবং ২০১০ সালে জাতীয় কবিতা সম্মেলনে অংশ নেই, জানান তিনি।
ছোটবেলার বেড়ে ওঠার গল্প তুলে ধরে সাবেক এম.এন.এ’র মেয়ে জাকিয়া বলেন, ’আমি বিভিন্ন প্রোগ্রামে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা গান কবিতা, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরু করি। একসময় সাহিত্য সম্পাদনা করি। দিনাজপুরের সাপ্তাহিক দিগন্ত বার্তা পত্রিকায় সাহিত্য সম্পাদিকা ছিলাম। পরবর্তীতে মহিলা আওয়ামী লীগের ৯নং ওয়ার্ডের সেক্রেটারি হই। ইকবাল ভাইয়ের (হুইপ ইকবালুর রহিম) বাবা (সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহিম) যখন সর্বশেষ ইলেকশন করেন। এরপর দিনাজপুরে যখন যুব মহিলা সংগঠন তৈরি হয় প্রথম থেকেই আমি যুগ্ম আহ্বায়িকা ছিলাম। এরপর যুব মহিলা লীগের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হই। আমার বাবার ইচ্ছা ছিল আমি অ্যাডভোকেট হই। সেই আমি ল’পাস করে দিনাজপুর বার আইনজীবী সমিতিতে যোগদান করেছি ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮ সালে।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা হওয়ার স্মৃতিচারণ করে জাকিয়া তাবাস্‌সুম জানান, "আমার মাকে নিয়ে আমি দুই বার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি, পরে বড় ভাইকে সঙ্গে নিয়ে। প্রধানমন্ত্রী আমাকে অনেক আদর করেছেন। আম্মার ইচ্ছা ছিল তার একটা সন্তান যেন সংসদে যায়। আম্মা আমাকে বলতো, ’অ্যাডভোকেট হলে তুই সাবমিট করবি, সংরক্ষিত মহিলা আসনে।’ আমি কনফিউস ছিলাম, করবো কি করবো না! কিন্তু আমার মেয়ে প্রভা শারমিন, ও ফুল এডামেন্ট ছিল; বলতো ’মা তুমি জানো, তুমি যদি আজকে এমপি হও তাহলে আমাদের দুজনের পড়ালেখার আর সমস্যা থাকবে না’।"
আমার থাকার বাসস্থানটুকুও আমাকে বিক্রি করে ফেলতে হয়েছে জানিয়ে জুঁই আরও বলেন, ’আমি ভাড়া বাড়িতেই আছি। বাবার সততা ধারণ করেছি এবং সেই সততা নিয়ে আমি এই ২৪ বছর রাজপথে চার আনা পয়সাও কারো কাছ থেকে নেইনি। উল্টো স্বামীর পকেট থেকে খরচ করেছি। এই সমস্ত কারণে অনেকে বলে যে, তোমাকে কি প্রধানমন্ত্রী দেখে রাখে? আমি বলি, না দরকার নেই। প্রধানমন্ত্রীর জন্য আমার জান হাজির। আমি ইমোশনাল, পাগল। দলের জন্য পাগলামি করি। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী যে আমাকে এতো বড় আসনে অধিষ্ঠিত করবেন এবং আমার মায়ের স্বপ্নপূরণ হবে, আমার বাবা যে সংসদে ছিল সেইখানে যেতে পারবো, এটা বুঝিনি।’
জুঁই বলেন, ’আমি যখন অ্যাডভোকেট হই সেই অনুভূতিটা অন্যরকম ছিল, কিন্তু রাজপথ হয়ে যে সংসদে যাবো, আমার বাবার সেই সংসদে বিচরণ করবো, তা ভাবতে পারিনি। তবে আমার আস্থা ছিল, প্রধানমন্ত্রীর ওপর। আমি জানি ওনার খুব দৃষ্টি অনেক তীক্ষ্ম।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে জাকিয়া তাবাস্সুম আরও বলেন, ’গোটা পৃথিবীতে এতো বড় নেত্রী (শেখ হাসিনা) আসবে কিনা সন্দেহ আছে? আর আমি তার কাছে যেতে পারবো, তার পাশে বসে থাকার জন্য সংসদে ঢুকবো! আই ডোন্ট বিলিভ ইটস, ইট ইজ ইমাজিন!’
আপনি সংরক্ষিত এমপি হিসাবে মনোনীত হয়েছেন প্রথম কার কাছে বিষয়টি জানতে পারেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, "প্রথম এসএমএস এসেছে ডিসি সাহেবের কাছ থেকে। আমাকে এসএমএস দিয়েছেন, কনগ্রাচুলেশন। দ্বিতীয়ত যুব মহিলা লীগের প্রেসিডেন্ট আমাকে এসএমএস দিয়েছে, আর আমি ভাবছি হোয়াই? এরপর আমি টিভিটা যখন অন করছি, তখন অলরেডি আমার নাম ঘোষণা হয়ে গেছে, আমি শেষটুকু দেখেছি। তারপরে ফোনের পর ফোন…। অনেকে ফোন দিচ্ছি, কিন্তু নিজের চোখে না দেখে আমি বিশ্বাস করিনি। ঠিক ল’র রেজাল্টেও এমন হয়েছিল। আমি দেখিনি কিন্তু অনেকে ফোন দিচ্ছিল। লাস্টে টিভি ক্যাপশনে দেখছি, আমার নাম- জাকিয়া তাবাসসুম, দিনাজপুর।"
’তখন আমি নিজের চোখে দেখে বিশ্বাস করলাম এবং তারপর সবার সঙ্গে কথা হলো এবং আমি প্রাউড ফিল করছি। এতো কল এসেছে, আমি কাউকে কল দিতে পারিনি। ইনফ্যাক্ট এনায়েত ভাই-ইকবাল ভাইকেও (এনায়েতুর রহিম, হুইপ ইকবালুর রহিম) না, এতো কল এসেছে। আমি কিন্তু ক্ষুধার্ত, প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে ভাত রাখা আছে, খেতে পারিনি। এক গ্লাস পানিও খেতে পারিনি।’ বলেন এই রাজপথের নেত্রী।
প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মন্ত্রিসভা গঠনের পর সংরক্ষিত মহিলা আসনেও বিশাল চমক উপহার দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভা শেষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সংবাদ সম্মেলনে ৪১ জন মনোনীত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন। মনোনীত প্রার্থী তালিকায় দশম জাতীয় সংসদের মাত্র ২ জন ঠাঁই পেয়েছেন। এছাড়াও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের মধ্য থেকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কোনো নেত্রীর ঠাঁই হয়নি।

আরো পড়ুন

দলবদল সাবেক ছাত্রদল নেতা মীর সাব্বিরের, বিএনপি কর্মীদের সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট

19 January, 2021 | Hits:764

বরগুনা পৌর নির্বাচনে বেশ আট ঘাট বেঁ/ধেই নৌকা প্রতীকে প্রচার শুরু করেছেন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা ও প্রযোজক মীর সাব...

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের জন্য গর্ব নান্দাইলের জাইন সিদ্দিকী

18 January, 2021 | Hits:488

তার নাম জাইন সিদ্দিকী। নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের হোয়াইট হাউস প্রশাসনে প্রথম বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত আমেরি...

না ফেরার দেশে চলে গেলেন অভিনেতা মজিবুর রহমান দিলু

19 January, 2021 | Hits:488

এক সময়কার বিশিষ্ট অভিনেতা, নাটক পরিচালক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমান দিলু চিরদিনের মতো সবাইকে ছেড়ে চলে গেছেন না ফেরার...

এবার কানাডায় বি/পাকে পড়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা

18 January, 2021 | Hits:427

প্রথম দিকে লকডাউন, তারপরে কা’রফিউ এবং শেষ পর্যন্ত জ’রু/রি অবস্থা ঘোষনা করলো কানাডা। কানাডার করোনা পরিস্থিতি অনেকটা চ’র/ম...

দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত

18 January, 2021 | Hits:394

করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে। তবে এই সকল বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি আগামী ফেব্রুয়া...

ইসরায়েলিদের নিয়ে নি'ষেধা/জ্ঞার তোয়াক্কা না করেই সৌদির কান্ড

18 January, 2021 | Hits:298

সাম্প্রতিক সময়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের রাজনীতিতে মধ্য প্রাচ্য আরও বেশি উ’ত্ত/প্ত হয়ে উঠতে শুরু করেছে। সৌদি আরব আনুষ্ঠানিক...

গৃহব/ধূ ও কাজির হিল্লা বিয়ে, মেলামেশার ভিডিও করলো স্কুলছাত্র

18 January, 2021 | Hits:260

রা/গের ব’শব/তী হয়ে স্বামী তার স্ত্রীকে তিনবার তা’লাক দিয়ে ফেলেন। তারপর গৃহব/ধূ অনেকটা সবার অ’গো/চরে একজন সাব-কাজির নিকট...

আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের নিকট তাহলে ক্ষমা চাইবে পাকিস্তান

18 January, 2021 | Hits:179

বাংলাদেশ-পাকিস্তান সম্পর্কের মধ্যবর্তী যে দীর্ঘ সময়কার সম্পর্কহীনতা তা ধীরে ধীরে পরিষ্কার হতে শুরু করেছে। ইসলামাবাদ প্রা...

কাগজপত্র দেখতে চাওয়াটাই কাল হলো সার্জেন্টের, ভে/ঙে দিল হাত

20 January, 2021 | Hits:171

অ’ভি/যোগ করা হয়েছে যে, চেকপোস্টে মোটর সাইকেলের কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় দুইজন যুবক ট্রাফিক পু’/লি’/শ সার্জেন্টকে বে’/দম মা...