ছেলে ও মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানের বাকি তার আগে কনের বাবা ছেলের মাকে নিয়ে প’লা/য়ন করলেন। এই চাঞ্চ’ল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে প্রতিবেশী দেশ ভারতের সুরাটে। ঘটনাটি ঘটে ছেলে- মেয়ের বিবাহের দিন পাকাপাকি করতে দুই পরিবারের সদস্যরা মিলিত হয়েছিল। তাদের ভালোবাসা এতটাই গভীরে পৌছায় যে তাদের ছেলে এবং মেয়ের বিয়ে পর্যন্ত সময় নিল না, তার আগেই হবু বেয়াই বেয়ান পালিয়ে গেল দুজন দুজনার হাত ধরে। এখন পর্যন্ত তাদের কোন হদিস মেলেনি।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস জানায়, সুরাটের এক কাপড় ব্যবসায়ীর মেয়ের নভসারি এলাকার এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল। তারপর তারা পারিবারিকভাবে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। এই বছর ১৩ ফেব্রুয়ারি তাদের বিয়ের দিন ঠিক হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, এই বিয়েতে আপ’ত্তি জানাচ্ছিলেন মেয়ের বাবা। কিন্তু পাত্রের বাড়ি থেকে জো’/র দেওয়াতেই বিয়ে এক প্রকার পাকা হয়। এরপর হঠাৎই চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি থেকে মেয়ের বাবা ও ছেলের মায়ের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়, তারা লা’পাত্তা। খোঁজা শুরু হয় গোটা এলাকা জুড়ে। দুই পরিবারই থা’/নায় নিখোঁজ ডাইরি করে একইদিনে।

তবে স্ত্রী কার সঙ্গে পা’/লিয়েছেন তা আন্দাজ করতে পেরেছিলেন পাত্রের বাবা। তিনি পু’/লি’/শকে জানান, সুরাটের ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গেই পা’লি/য়েছেন তার স্ত্রী। গত ১০ জানুয়ারি বাজার করতে যাচ্ছে বলে বেরিয়েছিলেন তিনি। এরপর আর ফেরেনি। ফোনও সুইচ অফ করে দেন।

পু’/লি’/শ জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর জানা গেছে যে, ছেলেটির মা সুরাটে এসে মেয়েটির বাবার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। এরপর তারা ৪৮ নং জাতীয় মহাসড়কে বাইকে করে কাদোদারা নামক একটি এলাকায় পৌঁছান। সেখান হতে ঐ মেয়েটির বাবা তার একজন বন্ধুকে ডাকেন এবং বলেন তার বাইকটি নিয়ে বাড়িতে রেখে যেতে। এরপর হবু বেয়াই বেয়ান বাসে উঠেন এবং অজানা উদ্দেশ্য পা’/লি’য়ে যান।

সম্ভবত, কনের বাবা এবং বরের মা বেশ পূর্ব থেকেই পরিচিত ছিলেন এবং তাদের মাঝে মন দেয়া নেওয়ার বিষয় চলছিল। যাইহোক, ছেলেমেয়েদের বিয়ের আগেই তারা নিজেরা কিছু করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে। তবে ছেলেও মেয়ে তাদের বিয়ের বিষয়ে সিদ্ধান্ত বদলাতে চান না।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display