করোনাভাইরাস প্রকোপে দিশেহারা গোটা বিশ্ব। সারা বিশ্বে এই করোনাভাইরাস ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করেছে। কি মধ্যে ছড়িয়ে গেছে গোটা বিশ্বে এই ভাইরাসটি।তবে সব থেকে চিন্তার বিষয় হলো এই ভাইরাসটির কোন প্রতিষেধক এখনো বাজারে আসেনি যদিও চিকিৎসকরা এর আগে অনেকবার আশার বাণী শুনিয়েছে প্রাণঘাতী কোন ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে পেরেছে তারা কিন্তু বাস্তবিক ভাবে তাদের সেসব আবিষ্কার ফলপ্রসূ হয়নি। মূলত এই বিষয়টির কারণেই সাধারণ মানুষের মনে চিন্তার যেন অন্ত নেই।



প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) বিপর্যস্ত গোটা দেশ। ক্রমেই আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। একই সঙ্গে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। কিন্তু এখনও কোনো প্রতিষেধক তৈরি হয়নি। তবে আগামী জানুয়ারির মধ্যেই করোনার ওষুধ বাজারে আসবে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের চিকৎসকরা।

সিইপিআই এর ভ্যাকসিন ডেভলপমেন্টর পরিচালক মেলানি সেভিল বলছেন আগামী বছরের মধ্যেই ওষুধটি সবার ব্যবহারের উপযোগী হবে।

প্রথমে স্বাস্থ্যসেবা কর্মী ও শারীরিকভাবে দুর্বলদের করোনার ওষুধ দেওয়া হবে। এরই মধ্যে ওষুধ তৈরি বাবদ ২১০ মিলিয়ন ডলার অনুদান গ্রহণ করেছে কম্পানিটি। এ বিষয়ে ব্রিটিশ সরকার বলছে করোনার ওষুধ তৈরিতে এইটা বড় ধরনের অনুদান।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলছেন, আমাদের চিকিৎসকরা করোনার প্রতিষেধক তৈরি করছে যা সারা বিশ্বের মানুষকে সুস্থতা দান করবে। আমি আবারো সবাইকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি।

করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক সহজেই আবিষ্কার করা যাচ্ছে না।চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে দেখেছেন এই ভাইরাসটি মানুষের দেহে প্রবেশ করে প্রতিনিয়ত তাঁরা চরিত্র বদলাচ্ছেন যার ফলে নির্দিষ্ট মাত্রার কোন প্রতিষেধক শরীরে কাজ করছে না। এর ফলে মূলত গবেষকদের এই ভাইরাসটি প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে একটু বেগ পেতে হচ্ছে। যদিও পরীক্ষামুলকভাবে অনেকবার এই প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনার অনেক প্রতিষেধক আবিষ্কার করেছিল বিভিন্ন দেশ কিন্তু সেগুলো সফল হয়নি

আরো পড়ুন

Error: No articles to display