করোনর হাত থেকে বাঁচতে প্রথম যে জিনিসটি ব্যবহার করা জরূরী সেটি হলো মাস্ক ব্যবহার। বাতাসের সাথে ভেসে বেড়ায় অসংখ্য জীবানু আর এই জীবাণু থেকে রক্ষা করতে পারে মাস্ক। মাস্ক অনেকটা দেওয়াল হিসেবে কাজ করে থাকে, যে দেওয়াল বাধা দেয় শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে আমাদের শরীরে জীবানু প্রবেশ করতে। করোনা ভাইরাস সাধারনত ড্রপলেট আকারে বাতাসে ভেসে গিয়ে আ’ক্রা’ন্ত করে অন্য ব্যক্তিকে। অনেক গবেষনায় গবেষকগন দেখেছে মাস্ক ব্যবহার করলে সংক্রমণের যে ঝুঁ’কি তা হ্রাস পায় শতকরা ৫০ ভাগ। এ কারনেই বড় ধরনের শিল্ড হিসেবে কাজ করে মাস্ক।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

এজন্যই বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় বাড়ির বাইরে বের হলেই মাস্ক পরার উপর ক’ড়াকড়ি নির্দেশ আরোপ করা হয়েছে। বেশিরভাগ মানুষ মাস্ক পরে অস্ব’স্তিতে ভোগে। স্কিনের সমস্যা, গ্লাস ঘোলা যাওয়া এইটা খুব স্বাভাবিক হয়ে দাড়িয়েছে এখন। তবে মাস্ক পরার নতুন আরেকটি সম’স্যা যোগ হয়েছে তা হলো গলা ব্যাথা।

মাস্ক অনেকক্ষণ পরে থাকার গলা ব্যাথা হয় এই অভি’যোগ এখন অনেক মানুষের। কেন মাস্ক পরলে গলা ব্যাথা হয় এর পিছনে অনেক কারণ রয়েছে। মাস্কের ভুল ব্যবহারে সৃষ্ট সমস্যায়, করোনার মতোই উপসর্গ আর সেটা এই গলা ব্যথা।

নোং’রা মাস্ক এবং গলা ব্যাথা:

আমরা যেমন আমাদের হাত পরিষ্কার রাখতে হ্যান্ডওয়াশ বা সাবান ব্যবহার করি তেমন আমাদের কাপড় চোপড়ও পরিষ্কার রাখা দরকার। আমরা প্রতিদিন যে মাস্ক পরি তা প্রতিদিন পরিষ্কার করতে হবে। ধুলা, ময়লা গলা ব্যাথার কারণ হতে পারে। দীর্ঘ সময় মাস্ক পরে থাকার পর পরিষ্কার না করলে এই কণাগুলো মাস্কে জমে। আর ক্ষুদ্র কণাগুলো গলাতে প্রবেশ করে গলা ব্যাথা সৃষ্টি করে। এক্ষেত্রে যাদের অ্যালার্জির সমস্যা আছে তাদের ঝুঁ’কি বেশি।

জোরে কথা বলা:
মাস্ক পরলে মানুষ সাধারণভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে জোরে কথা বলে। তার সামনের মানুষের সুবিধার্থে মানুষ এমনটা করে। এতে করে গলায় প্র’দাহ সৃষ্টি হয় এবং এক পর্যায়ে গলা ব্যাথা হয়।

প্রতিরোধ:
গলা ব্যাথার এই সমস্যা দূর করতে হাত ধোঁয়ার পাশাপাশি মাস্কও ধুতে হবে। প্রতিবার ব্যবহারের পর গরম পানি এবং সাবান দিয়ে মাস্ক পরিষ্কার করতে হবে। ধোয়ার পর ভালোভাবে রোদে শুকাতে হবে। এজন্য সাথে কম করে হলেও দুইটা মাস্ক রাখতে হবে যেনো একটা ভেজা থাকলে আরেকটা ব্যবহার করা যায়। সেই সাথে মাস্ক পরা অবস্থায় মাস্কে হাত দেওয়ার আগে হাত ভালোভাবে স্যানিটাইজ করে নিতে হবে।

মাস্ক বাতাসে ভেসে বেড়ানো অনেক জীবানু শরীরে প্রবেশে যেমন বাধা দিয়ে থাকে তেমনি তা এসে জমা হয় আপনার মাস্কে। কেননা কেউ যদি সেটাকে বাতাসের ছাকনি হিসেবে ধরে নেয় তাহলে মাস্কের উপরে অদৃশ্য ময়লা জড়ো হওয়াটা স্বাভাবিক। উদাহরন টেনে বলা যেতে পারে পানি ছাকনির মতই কাজ করে থাকে এই মাস্ক। তাই মাস্কে প্রতিদিন জমা হয় অসংখ্য জীবানু তাই ব্যবহারের পর মাস্ক ধুয়ে ফেলাটা জরুরী।
টাইমস অফ ইন্ডিয়ার তথ্য সূত্র অনুযায়ী।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display