প্রায় সময়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিভিন্ন সুযোগ সুভিধা পাওয়ার দাবি জানান যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা। এদিকে তাদের দাবিগুলোর মধ্যে অন্যতম দাবিতে সাড়া দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জানা গেছে, ঢাকা থেকে নিউইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট, যা সহসাই চালু হচ্ছে। সেই সাথে প্রবাসী বিনিয়োগের সুযোগ-সুবিধাও বহু অংশে বৃদ্ধি পাবে। এবং এ সুবিধার ফলে প্রবাসীদের ব্যয় অনেক অংশে কমে যাবে।
সম্প্রতি নিউইয়র্ক সফরে জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব তথ্য জানিয়েছেন। এ সময় মঞ্চে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন ও জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ’আপনাদের অনেক দিনের দাবি নিউইয়র্ক-ঢাকা সরাসরি বিমান চালু করার। আমরা কিছুদিন আগে ১০টি উড়োজাহাজ কিনেছি। আমেরিকার সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে আমরা কথা বলে অনেক দূর এগিয়েছি। আশা করছি, খুব তাড়াতাড়ি সরকার আপনাদের এ স্বপ্ন পূরণ করতে পারবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ’জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি কুখ্যাত রাশেদ চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফেরত নিতে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে নথিপত্র তুলে দিয়েছি।’

নিউইয়র্ক-ঢাকা সরাসরি বিমান চালুর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ওই বক্তব্যের পর আশা আলো দেখছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা। এদিকে এ বিষয়ে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) সদস্য ফ্লাইট সেফটি অ্যান্ড রেগুলেশন গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী মোহাম্মদ জিয়াউল কবিরও আশার কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, ’ক্যাটাগরি পরিবর্তন হলেই আমরা নিউইয়র্ক রুটে যেতে পারব। আশা করছি, আসন্ন ডিসেম্বরের মধ্যে এ সংক্রান্ত একটি ভালো সংবাদ দেয়া হয়তো সম্ভব হবে।’

মার্কিন ফেডারেল এভিয়েশন অথরিটির (এফএএ) মানদণ্ডে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) অবস্থান ক্যাটাগরি-২। মূলত এ কারণে চালু হচ্ছিল না বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বহুপ্রতীক্ষিত নিউইয়র্ক রুটে সরাসরি ফ্লাইট। তবে সম্প্রতি বাংলাদেশ বিমান নতুন উড়োজাহাজ ক্রয়সহ বিমানবন্দরের নিরাপত্তায় অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় সন্তোষজনক অবস্থায় নিয়ে এসেছে। প্রবাসীদের এ দাবি পূরন হলে তাদের যাওয়া আসা করতে অধিক ব্যয়ের দরকার হবে না। এমনকি নিউইয়র্ক যেতে হলে তাদের অন্য কথাও যাওয়ার প্রয়োজন হবেনা সরাসরি ঢাকা থেকে তারা নিউইয়র্কে যেতে পারবে। শুধু তাই নয় এ দাবি বাস্তবায়ন করা হলে প্রবাসীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষেরও উপকার হবে।