আজ সোমবার (০৭ অক্টোবর) দুপুর দেড় তার দিকে গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে এক আলাপকালে রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হয়নি দাবি জানিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেন, রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন আমদের প্রার্থী সাদ এরশাদকে সমর্থন করেছে আওয়ামী লীগ। জাতীয় পার্টি এ নির্বাচনে জিতবে এটা এখানকার প্রত্যেকেই জানে। এবং এ নির্বাচনে ভোটারদের আগ্রহ কম থাকার কারণ নৌকা-লাঙল এক থাকা।
রংপুরকে জাতীয় পার্টির দুর্গ উল্লেখ করে জি এম কাদের বলেন, রংপুর লাঙলের ঘাঁটি। এখানকার মানুষের সমর্থন সবসময় জাতীয় পার্টির প্রতি ছিল। যা এবারের নির্বাচনেও প্রমাণ হয়েছে। যদিও নির্বাচনে আগ্রহ কম থাকায় ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে। আমাদের কর্মী সমর্থকরা তো ভোট দিয়েছে।

বর্তমান সরকারের চলমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযান প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান আগেই স্পষ্ট করেছি। আমরা মহাজোটে নির্বাচন করার সময় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম দুর্নীতির ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতি থাকবে। আমরা সরকারকে সহযোগিতা করব।

এ সময় সাদ এরশাদের পক্ষে না থেকে দলের যে সব নেতারা নির্বাচনে বিরোধিতা করেছেন তাদের ব্যাপারে দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযারী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও জানান জি এম কাদের।

এদিকে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহি সাদ বলেন, আমি রংপুরের সবাইকে নিয়ে কাজ করব। দলের চেয়ারম্যান, বিরোধি দলীয় নেতা, প্রধানমন্ত্রীসহ সবার সঙ্গে কথা বলে রংপুরকে এগিয়ে নিতে চাই। আমার আব্বার অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করতে চাই।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের আজ সোমবার সকালে
১০টার দিকে রংপুরে ৩দিনের সফরে এসে পল্লীনিবাসে গেলে সাদ এরশাদ তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান। এ সময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সম্পাদক শাফিউল ইসলাম শাফি, রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আব্দুল বারী এবং দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন নেতারা।