দীর্ঘ দুই বছর কারাভোগের পর অবশেষে মুক্তির স্বাদ পেল বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। দুই মেয়েদের শর্তসাপেক্ষে মোট ছয় মাসের জন্য তাকে মুক্তি প্রদান করা হয়েছে। দুর্নীতির বিভিন্ন মামলায় কারাগারে রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তিনি কারাগারে যাওয়ার পর থেকেই তার দলীয় নেতাকর্মীরা বিভিন্ন সময় তাদের চেয়ারপারসনের মুক্তি চেয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেছে কিন্তু তাতে ব্যর্থ হয়েছে তারা। বিএনপির নেতাকর্মীদের অভিযোগ ছিল বিএনপির নেতাকর্মীদের অভিযোগ ছিল যে আদালতের ওপর বা বিচার ব্যবস্থার উপর সরকারের হস্তক্ষেপ রয়েছে যার কারণে মুক্তি পাচ্ছে না খালেদা জিয়া। তবে বিএনপি নেতাকর্মীদের এমন অভিযোগ বরাবরই প্রত্যাখ্যান করে এসেছে সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা তারা বলেছে এটা সম্পূর্ণ আদালতের ব্যাপার
আজ থেকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তাঁর চিকিৎসার সার্বিক তদারকি করবেন পূত্রবধূ ডা. জোবায়দা রহমান। পরিবারের সদস্য ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে কাছে পেয়ে তিনি মানসিকভাবে অনেকটাই শক্তিশালী বোধ করছেন বলে জানালেন বিএনপি নেতারা।

দীর্ঘদিন কারাবন্দি থাকার পর অবশেষে কারা মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া। গতকাল মানবিক কারণে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার দ্বন্দ্ব ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছে সরকার।দীর্ঘ দুই বছর ধরে তিনি কারাগারে বন্দী অবস্থায় ছিলেন এবং দীর্ঘদিন কারাবন্দি থাকার ফলে তার বিভিন্ন শারীরিক অসুস্থতার কথা বিভিন্ন সময় জানা গিয়েছিল এ ব্যাপারে দলীয় নেতাকর্মীরা এবং খালেদা জিয়ার আত্মীয় স্বজনরা সরকারের কাছে তার মুক্তির জন্য অনেকবার আবেদন জানিয়েছিল

আরো পড়ুন

Error: No articles to display