রেকর্ড করলো আদার দাম, কেজিতে বাড়লো ৭০ টাকা

বিভিন্ন ভোগ্যপণ্যের দাম আকাশচুম্বী হওয়ার পর হঠাৎ করেই বাড়ছে আমদানি করা আদার দাম। দেশের বৃহত্তম ভোগ্যপণ্যের পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে এই পণ্যটির দাম কেজিতে রেকর্ড ৭০ টাকা বেড়েছে। কয়েকদিন আগে খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজারে চীন থেকে আমদানি করা আদা প্রতি কেজি ১০৫ থেকে ১১০ টাকায় বিক্রি হয়। কিন্তু একই মানের আদা এখন বিক্রি হচ্ছে ১৬৫ থেকে ১৭০ টাকা কেজিতে। পণ্যের পাইকারি দাম এত বেড়ে যাওয়ায় সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। খুচরা বাজারে এক কেজি আদার দাম এখন প্রায় ১৯০ টাকা। তাই এখন ডাবল সেঞ্চুরির অপেক্ষায় পণ্যটির দাম। কিন্তু কয়েকদিন আগে পণ্যটি খুচরা বিক্রি হয়েছে ১২০ টাকায়।

শিগগিরই সরবরাহ স্বাভাবিক না হলে আদার দাম ২০০ টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ার কথা বলছেন ব্যবসায়ী, আমদানিকারকসহ সংশ্লিষ্টরা। তাদের মতে, ডলারের দাম বৃদ্ধি ও বাড়তি লোকসানের আশঙ্কায় আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন ব্যবসায়ী-আমদানিকারকরা। আমদানি নির্ভরতা ও সরবরাহ ঘাটতির কারণে অল্প সময়ের মধ্যে এত দাম বেড়েছে। এদিকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে হঠাৎ করে আদার দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় চরম বিপাকে পড়তে হচ্ছে নিম্ন-মধ্যবিত্তদের। তারা তাদের দৈনন্দিন খরচ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে।

অন্য সময়ে খাতুনগঞ্জে আমদানি করা পেঁয়াজ ও রসুনের সঙ্গে সারিবদ্ধভাবে আমদানি করা আদা রাখা হতো। কিন্তু বর্তমান চিত্র একেবারেই ভিন্ন। খাতুনগঞ্জের কয়েকটি স্থান ঘুরে দেখা গেছে, বেশির ভাগই পেঁয়াজ ও রসুন আমদানি করা হলেও সেখানে আগের মত নেই সারি সারি আদার বস্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *